এজেন্ট ব্যংকিং কী ? কিভাবে শুরু করবেন ? কত টাকা লাভ হবে ? ।। What is agent Banking and how to start agent Banking

এজেন্ট ব্যংকিং কী ? কিভাবে শুরু করবেন ? কত টাকা লাভ হবে ? ।। What is agent Banking and how to start agent Banking


Posted on: 2020-03-20 02:11:33 | Posted by: eibbuy.com
এজেন্ট ব্যংকিং কী ? কিভাবে শুরু করবেন ? কত টাকা লাভ হবে ? ।। What is agent Banking and how to start agent Banking

এজেন্ট ব্যংকিং কী ?

এজেন্ট ব্যংকিং হলো এমন ব্যংকিং সেবা যা কোন ব্রাঞ্চের অধীনে ব্যংকিং সেবা দিয়ে থাকে । এজেন্ট ব্যংকিং এর কাজ মুল ব্রাঞ্চ এর অধীনে হয়ে থাকে । তবে এর কাজ ব্রঞ্চের মত নয় । তবে বর্তমানে এজেন্ট ব্যংকিং সেবা একটি বিজনেস এ পরিনত হয়েছে । বর্তমানে বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী ব্যংকগুলো এজেন্ট ব্যংকিং এর সেবা দিয়ে থাকে ।


এজেন্ট ব্যংক থেকে কি কি সেবা প্রধান করা যাবে ?

মুল ব্যংকে যে সকল কাজ হয়ে থাকে এজেন্ট ব্যংকে সে ধরনের কাজ হয়ে থাকে । যেমন : একাউন্ট খোলা , স্বল্প মেয়াদী ও দীর্ঘ মেয়াদী আমানত সংগ্রহ করা । লোন প্রধান করা , চেক প্রধান করা , কার্ড প্রধান করা , বিদ্যুৎ বিল সংগ্রহ করা , আরো ইত্যদি । তবে আপনি যে ধরনের সেবা প্রধান করবেন চেষ্টা করবেন খুব সহযে যেন গ্রহকরা তা গ্রহন করতে পারে ।


কিভাবে শুরু করবেন ?
এজেন্ট ব্যংকিং শুরু করতে হলে প্রথমত আপনাকে একটি ব্যংক নিদিষ্ট করতে হবে । অথ্যাৎ আপনি যে ব্যংকের এজেন্ট আনবেন । বর্তমানে আনেক ব্যংক এজেন্ট ব্যংক দিয়ে থাকে । এজেন্ট ব্যংক দেওয়ার পুর্বে আপনাকে একটি নিদিষ্ট স্থান নির্ধারন করতে হবে স্থানটি যেন আপনার আশে পাশে যে কোন জনকীর্ন এবং মানুষের পরিচিত ও যাতায়াতে সহয স্থান হয় । তবে আপনি যে স্থান নির্বাচন করবেন অথাৎ যেখানে এটি দিবেন তার যাবতীয় খরচ আপনাকে বহন করতে হবে। যখন আপনার স্থান নির্বাচন হয়ে যাবে তখন আপনি যে ব্যংকের এজেন্ট আনবেন তার প্রধান কার্যলয়ে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে । আপনি তাদের সাথে যোগাযোগ করার পর তারা আপনার এলাকায় আসবে এবং এজেন্ট ব্যংকিং এর সম্ভব্যতা যাচাই করবে এবং যিনি আবেদন করছে তার সম্পর্কে যাচাই করবে । তো সব মিলিয়ে তাদের যাচাই যদি ঠিক ঠাক হয় তাহলে তারা আপনার আবেদন গ্রহন করবে ।
কত টাকা বিনিয়োগ করতে হবে ?

আমরা প্রথমে উল্লেখ করেছি এজেন্ট ব্যংকিং এক ধরনের বিজনেস তাই অন্যন্য বিজনেস এর মত এটিতে বিনিয়োগ করতে হবে । প্রথম আবস্থা আপনি যখন আবেদন করবেন সে আবেদন কৃত ব্যংকে আপনার ১০ থেকে ১৫ লাখ টাকার একটি ডিপোজিট দেখাতে হবে । এছাডা আফিসের কম্পিউটার ও ডেকেরশন বাবদ ২ থেকে ৩ লাখ টাকা লাগবে । তবে সেটি আপনার চাহিদার উপর নির্ভর করবে ।


এজেন্ট ব্যংকিং লাভের উৎসহ কী ?

গ্রহকের ডিপোজিট থেকে ২-৩% । কারেন্ট একাউন্ট , ডিপোজিট , ফিক্সডিপোজিট , ফরেন রেমিটেন্স একাউন্ট বোনাস , চেক বই ইসু , এটিএম কার্ড ইস্যু , বিদ্যুৎ বিল , ইটিলিটি বিল , লোন প্রদান করলে ১% কমিশন , পার্সপোট ফ্রি জমা ইত্যাদি সহ আরো আনেক লাভের উৎসহ রয়েছে ।


খরচ :
প্রথমিক ভাবে ডেকেরেশন বাবদ ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা খরচ করতে হবে। এটি হলো আপনার স্থায়ী খরচ । এছাড়া আপনাকে প্রতি মাসে কিছু খরচ করতে হবে । যেমন : দোকান ভাড়া বাবদ ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা এবং কর্মচারী বেতন বাবদ ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা বিদ্যুৎ বিল ও অন্যন্য খরচ বাবদ ১ থেকে ২ হাজার টাকা। তাছাড়া প্রতি এজেন্ট ব্যংকে মুল ব্যংক থেকে একজন স্থয়ী ম্যানেজার নিয়োগ দেওয়া হবে যার বেতন ব্যংক কতৃপক্ষ দিয়ে থাকে । তো সব মিলিয়ে প্রতি মাসে আপনার ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা খরচ হতে পারে । তবে সেটি আপনার চাহিদার উপর নির্ভর করে খরচ কমতে ও বাড়তে পারে ।


লাভ লোকসান :

এজেন্ট ব্যংকে প্রথম আবস্থায় আপনার তেমন লাভ হবে না তবে এটি যেহেতু একটি বিজনেস তাই আপনাকে এটি চালিয়ে যেতে হবে । প্রথম আবস্থায় ব্যংক কতৃপক্ষ বলে দিবে প্রথম ১ বছর আপনার তেমন বেশি লাভ হবে না। কারন আপনার ব্যংকে সেভিং না বাড়লে লাভ বাড়বে না । আপনার ব্যংকে যত বেশি টাকা টাকা যমা পড়বে তত বেশি আপনার লাভ হবে । তাই আপনাকে প্রথম বছর আপনার ব্যংকের পরিচিতি ছড়িয়ে দিতে হবে । মোটামুটি আপনার ব্যংকে যদি ৫ কোটি টাকা সেভিংস হয় তাহলে আপনি প্রতি মাসে ৭০ - ৮০ হাজার টাকা লাভ করতে পারবেন । খরচ বাদে প্রতি মাসে আপনি ৪৫-৫০ হাজার আনায়াসে আয় করতে পারবেন । তবে আপনার সেভিংস যত বাড়বে আপনার আয় তত বাড়বে । প্রথম বছর আপনাকে একটু প্ররিশ্রম করতে হবে । আপনার ব্যংকে যত প্রচার বাড়বে আপনার এবং মানুষের আমানত বাড়বে আপনার আয় তত বাড়বে ।


Related Post

জনপ্রিয় পণ্য

সাম্প্রতিক পণ্য

Leave a Comment:

Comment as:

alibaba & Import Export expert

সি এন্ড এফ, আমদানি, আলিবাবা নিয়ে যেকোনো সমস্যায় আমাকে ফেসবুকে মেসেজ করুন

এখানে ক্লিক করুন
2017 © 2021 eibbuy. All Rights Reserved.
Developed By Takwasoft