Thursday, April 4, 2019

বাংলাদেশ ডাক বিভাগের চালু করা ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’এর A to Z ।। Bangladesh Postal Service NOGOD Payment system




Top 6 best keyboards for android
Top 6 best keyboards for android

সরকারি উদ্যোগে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ চালু করেছে ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ "Nogod"। অধিকতর নিয়ন্ত্রণ এবং শৃঙ্খলা বজায় রেখে মানুষকে আরও বেশি লেনদেনের স্বাধীনতা প্রদানের লক্ষ্য নিয়ে অনানুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু হয়েছে এই Nogod সেবাটি ১ অক্টোবর ২০১৮ থেকে। যারা অনলাইনে ব্যবসা করেন এবং লিমিট নিয়ে সমস্যায় থাকেন তাদের জন্য এটা খুবই উপযোগী একটা সেবা। পুরোপুরিভাবে সেবাটি এখনও শুরু হয়নি। তবে কিছু ফিচার তারা চালু করেছে। এর মধ্যে আছে ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট, সেন্ড মানি এবং মোবাইল ফোনের ব্যালেন্স টপ আপ ইত্যাদি।
বিকাশ, রকেটসহ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর সেবা পরিচালিত হয় বাংলাদেশ ব্যাঙ্কের বিধি বিধান অনুযায়ী। কিন্তু ‘নগদ Nogod’ শীর্ষক এই সেবাটি পরিচালিত হচ্ছে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রণীত “বাংলাদেশ পোস্টাল অ্যাক্ট অ্যামেন্ডমেন্ট ২০১০” এর ৩ এর ২ এফ ধারার সুদৃঢ় এবং সুস্পষ্ট আইন অনুযায়ী। ২০১০ সালে শুরু হওয়া পোস্টাল ক্যাশ কার্ড সার্ভিস ছিল বাংলাদেশ ডাক বিভাগের প্রথম ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস। 

‘নগদ’ সেবার মাধ্যমে গ্রাহকরা বিকাশের চাইতে অধিকতর লিমিট সুবিধা পাচ্ছেন। এই প্রসঙ্গে ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার মন্ডল বলেন, সরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে আর্থিক লেনদেন ব্যবস্থাপনায় ডাক বিভাগের রয়েছে শত বছরেরও বেশি সময়ের অভিজ্ঞতা এবং দেশব্যাপী ৯৮৮৬টি পোস্ট অফিস। এই বিশেষ সেবাটির যথাযথ পরিচালনায় সরকারি দিক নির্দেশনা রয়েছে সুতরাং এর সঙ্গে অন্য কোন নিয়ন্ত্রক ব্যবস্থার অধিক্রমন হওয়ার কোন সুযোগ নেই । এছাড়াও সেবাটিকে আরও সুন্দর ও দক্ষতার সঙ্গে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষে সকল নিয়ম মেনে মাস্টার এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে ‘থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেড’ কে যাদের আছে এই খাতের পূর্বঅভিজ্ঞতা সম্পন্ন দক্ষ জনবল। প্রাথমিকভাবে হেড পোস্ট অফিসগুলোকে এবং পরবর্তী সময়ে ইউনিয়ন ও গ্রাম পর্যায়ের শাখাগুলোকে ‘নগদ’ সেবার আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছে ডাক বিভাগ।


কিভাবে নগদ Nogod হিসাব খুলবেন?
 
Nogod’ ‘নগদ’ হিসাব খুলতে হলে আপানার মোবাইলের সংযোগসহ কোন একটা ‘নগদ উদ্যোগটা’ পয়েন্টে যেতে হবে। সঙ্গে নিতে হবে জাতীয় পরিচয়পত্র, এনআইডি’র ফটোকপি এবং এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি। এবার ‘নগদ উদ্যোগটা’ পয়েন্ট কর্তৃক সরবরাহকৃত KYC ফর্ম পূরণ করুন নির্দেশমত। ব্যাস হয়ে গেল আপনার হিসাব খোলা। কোন ধরনের টেকনিক্যাল সমস্যা না থাকলে সঙ্গে সঙ্গে আপনার হিসাবটি একটিভ হয়ে যাবে।  সিস্টেম এ পুরো প্রোফাইল আপডেট না হওয়া পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ সুবিধা পাওয়া যাবে না। এই সময়টাকে বলা হয় লিমিট প্রোফাইল। তবে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সিস্টেম এ প্রোফাইল আপডেট হওয়ার কথা।

কিভাবে ‘নগদ’ হিসাব ব্যবহার করবেন?
‘নগদ’ হিসাব ব্যবহার করতে হলে আপনার মোবাইল ফোনের সংযোগ থেকে USSD কোড *১৬৭# তে কল করুন অথবা প্লে-স্টোর থেকে Nagad অ্যাপ ইন্সটল করুন। তার আগে আপনার হিসাবটি একটিভ হতে হবে। এই মুহূর্তে রবি, টেলিটক এবং এয়ারটেল গ্রাহকরা শুধু USSD কোড ব্যবহার করে ‘নগদ’ হিসাব ব্যবহার করতে পারবেন। বাংলালিংক এবং জিপির গ্রাহকরা এখনও USSD কোড ব্যবহার করার সুবিধা পাচ্ছেন না। তবে খুব শীঘ্রই তারা এই কোড ব্যবহার করতে পারবেন বলে কল সেন্টার থেকে জানানো হয়েছে। যে কোন অপারেটরের গ্রাহকরা অ্যাপ ব্যবহার করে ‘নগদ’ হিসাবের মাধ্যমে লেনদেন করতে পারবেন।

গ্রাহক ফি ও উদ্যোক্তা কমিশনঃ
‘নগদ’ এর সার্ভিস ফি বিকাশের চাইতে কম এবং উদ্যোক্তা কমিশন বেশি। নিচে এটা দেখান হলো।
১। ক্যাশ ইনঃ ফ্রি
২। ক্যাশ আউটঃ প্রতি ১,০০০ টাকার জন্য USSD কোডের জন্য ১৮.০০ টাকা এবং অ্যাপের জন্য ১৭.০০ টাকা।
৩। সেন্ড মানি (পিটুপি) প্রতি লেনদেনের বিপরীতে USSD কোডের জন্য ৪.০০ টাকা এবং অ্যাপ থেকে ফ্রি।
৪। উদ্যোক্তা কমিশনঃ USSD কোড অথবা অ্যাপের মাধ্যমে ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট এর জন্য প্রতি ১,০০০ টাকার বিপরীতে ৪.২৫ টাকা।

গ্রাহক লেনদেনের লিমিটঃ
১। ক্যাশ ইনঃ
দৈনিক লিমিটঃ প্রতি লেনদেনের লিমিট ৫০,০০০ টাকা। দৈনিক লিমিট ২৫০,০০০ টাকা। প্রতিদিন ১০ বার লেনদেন করা যাবে।
মাসিক লিমিটঃ প্রতি লেনদেনের লিমিট ৫০,০০০ টাকা। মাসিক লিমিট ৫০০,০০০ টাকা। মাসে ৫০ বার লেনদেন করা যাবে।
২। ক্যাশ আউটঃ
দৈনিক লিমিটঃ প্রতি লেনদেনের লিমিট ৫০,০০০ টাকা। দৈনিক লিমিট ২৫০,০০০ টাকা। প্রতিদিন ১০ বার লেনদেন করা যাবে।
মাসিক লিমিটঃ প্রতি লেনদেনের লিমিট ৫০,০০০ টাকা। মাসিক লিমিট ৫০০,০০০ টাকা। মাসে ৫০ বার লেনদেন করা যাবে।
৩। সেন্ড মানি (পিটুপি)ঃ
দৈনিক লিমিটঃ প্রতি লেনদেনের লিমিট ৫০,০০০ টাকা। দৈনিক লিমিট ২৫০,০০০ টাকা। প্রতিদিন ৫০ বার লেনদেন করা যাবে।
মাসিক লিমিটঃ প্রতি লেনদেনের লিমিট ৫০,০০০ টাকা। মাসিক লিমিট ৫০০,০০০ টাকা। মাসে ১৫০ বার লেনদেন করা যাবে।
৪। মোবাইল ফোন টপ আপঃ প্রতি লেনদেনের লিমিট ১,০০০ টাকা। দৈনিক এবং মাসিক কোন লিমিট নেই।

কাস্টমার সেবাঃ
‘নগদ’ এর কল সেন্টার সপ্তাহের ৭ দিন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে। এ ছাড়াও ঢাকার বনানীতে তাদের একটা কাস্টমার সেবা অফিস আছে। তারা পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন জায়গায় কাস্টমার সেবা চালু করতে যাচ্ছে। আপনি এখন নিম্নোক্তভাবে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।
কল সেন্টারঃ ১৬১৬৭ অথবা ০৯৬০৯৬১৬১৬৭
ই-মেইলঃ info@nagad.com.bd
ডেল্টা ডালিয়া টাওয়ার (লেভেল ১৩ এবং ১৪)
৩৬, কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ
বনানী, ঢাকা।

উপসংহারঃ
বাংলাদেশের দুই তৃতীয়াংশ মানুষ এখনো আর্থিক সেবার আওতার বাইরে আছেন বলে জানিয়েছেন ডাক বিভাগের মহাপরিচালক। তাই প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষকে আর্থিক সেবার আওতায় আনার ক্ষেত্রে ‘নগদ’ সেবা বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি মনে করেন। তবে এটা কতটুকু সফলভাবে অগ্রসর হবে সেটাই এখন দেখার বিষয়। কেননা আমরা নিকট অতীতে দেখেছি ডিবিবিএল এর ‘রকেট’ ‘বিকাশ’ এর চেয়ে অনেক বেশি ফিচার নিয়ে এসেছিলো। তাদের সার্ভিস ফি ছিল অনেক কম। কিন্তু ভালমানের সেবা দিতে না পারার কারণে লাভজনক ভাবে গড়ে উঠতে পারেনি।

15 comments:

  1. FAltu service, 17 tk per 1000tk??? charge kom holo kemne,,,,je law sei kodu.

    ReplyDelete
  2. আমি একটা একাউন্ট করকে চাই সেখানে নাম্বার ভুল করে ফেলেছি এখন কি করা য়ায়।

    ReplyDelete
  3. Birth certificate diye kora jay na??

    ReplyDelete
  4. আমি একটি একাউন্ট খুলতে গিয়ে ফোন নাম্বারটা ভুল কেরে ফেলেছি।এখন শুধু বলছে এই আইডি ইতি পূর্বে ব্যবহিত হয়েছে।এখন সমাধান পেলে খুব উকৃত হতাম।।

    ReplyDelete
  5. OTP jacai option a gie no entry nicsse na,,,akhon ki kora jai,,bolen plz

    ReplyDelete
  6. apps দিয়ে একাউন্ট খুললে কি, বিকাশের মত ৫০ টাকা পাওয়া যাবে ?

    ReplyDelete
  7. ami ki Account Edite Korte parbo

    ReplyDelete
  8. আস্সালামু আলাইকুম আমি একটি নগএকাউন্ট খুলেছি এখন মোবাইল নাম্বারটি পরিবর্তন করতে চাই। কিভাবে পরিবর্তন করব দয়াকরে একটু জানাবেন প্লিজ....

    ReplyDelete
  9. ami pin number vule gesi..
    ekn ki kora jai?

    ReplyDelete
  10. Ami amar pin code vule geci.kivabe new pin Pete pari?

    ReplyDelete